আজ-  ,

basic-bank

সাপ্তাহিক ইনতিজার রেজি. ন. ডি-এ ১৭ ৬৮ এর একটি ওয়েব সাইট সংষ্করণ


সংবাদ শিরোনাম :

এরশাদ জীবন- মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে: জি এম কাদের

রাজধানীর সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালের (সিএমএইচ) ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) লাইফ সাপোর্টে থাকা জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদ জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে বলে জানিয়েছেন তাঁর ভাই ও দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জি এম কাদের।

জি এম কাদের জানান, এরশাদ আগের চেয়ে ভালো আছেন। সর্বশেষ তাঁকে আজকে অনেকটা সুস্থ ও সুন্দর দেখা গেছে। তাঁকে চিকিৎসকদের পরামর্শে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছে। শ্বাস-প্রশ্বাস কৃত্রিমভাবে দেওয়া হচ্ছে। বৃহস্পতিবার রাতে ডায়ালাইসিস করা হয়েছে। পেট থেকে ২০০ গ্রাম পানি বের করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত তাঁর চিকিত্সা ওষুধনির্ভর। তাঁর শরীরে পানি জমে ছিল তা এখন নেই। শরীরে অস্থিরতা ও শ্বাসকষ্ট ছিল তা-ও এখন নেই। শুক্রবার জুমার পর বায়তুল মোকাররম মসজিদে এরশাদের রোগমুক্তি ও সুস্থতা কামনায় আয়োজিত দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে তিনি এ কথা জানান।

জি এম কাদের বলেন, তিনি যদি এভাবে কনটিনিউ করতে পারেন ও তাঁর যে অঙ্গ-প্রত্যঙ্গগুলো কাজ করছে না তা যদি সঠিকভাবে কাজ করে তাহলে হয়তো তিনি সুস্থ হতে পারেন। তবে তাঁর অবস্থা সার্বিকভাবে আশঙ্কাজনক। সিঙ্গাপুরে চিকিৎসা কি ভুল ছিল জানতে চাইলে তিনি বলেন, কেউ হয়তো ভাবতে পারেন তিনি কেন হঠাৎ অসুস্থ হলেন, গাফিলতি ছিল হয়তো। কিন্তু সত্যি বলতে সিঙ্গাপুরে তাঁর চিকিৎসা ভুল ছিল না। আমরা ভালোভাবে দেখেছি এখানকার ও সিঙ্গাপুরের চিকিৎসা একই।

এরশাদের চিকিৎসা পদ্ধতি প্রসঙ্গে কাদের বলেন, আগে যে সমস্যা ছিল তা দূর হয়েছে। তবে কৃত্রিমভাবে ভেন্টিলেশনের মাধ্যমে যন্ত্রের মাধ্যমে অক্সিজেন নিষ্কাশন হচ্ছে। কিডনিতে সমস্যা ছিল তা ডায়ালাইসিসের মাধ্যমে কার্যকর করে কৃত্রিম চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। জি এম কাদের আরো বলেন, তাঁকে এখন রক্ত দেওয়া হচ্ছে। গত সাত দিনে চিকিৎসাকদের পরামর্শে ২৮ ব্যাগ রক্ত দেওয়া হয়েছে। গত ৮ ঘণ্টায় ৮ ব্যাগ রক্ত দেওয়া হয়েছে। আরো রক্ত দেওয়ার প্রস্তুতি আছে। তবে রক্ত দেওয়ার পর তাঁর শরীরে যে উন্নতি হবার কথা তা সেভাবে হচ্ছে না। রক্তের প্লাটিলেট কমছে। বাড়ানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। রক্তক্ষরণ শুরু হলে রক্ত পড়া বন্ধ হবে না। উন্নতমানের চিকিৎসা চলছে। আমরা চিকিৎসায় সন্তুষ্ট। চিকিৎসাকরা চেষ্ট করছেন। এভাবে যদি চলতে থাকে তাহলে তিনি হয়তো যন্ত্রের সাহায্য ছাড়াই স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে পারেন।

এর আগে শুক্রবার বাদ জুমা বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে এরশাদের রোগমুক্তি ও সুস্থতা কামনায় দোয়া ও মিলাদ মাহফিলের আয়োজন করা হয়। গত ২২ জুন থেকে ৯০ বছর বয়সী এরশাদ সিএমএইচে চিকিৎসাধীন। এরশাদ হিমোগ্লোবিন-স্বল্পতা, ফুসফুসে সংক্রমণ ও কিডনির জটিলতায় ভুগছেন। বৃহস্পতিবার বিকালে তাঁকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Powered By : Intizar24 Developed By : BDiTZone