আজ-  ,

basic-bank

সাপ্তাহিক ইনতিজার রেজি. ন. ডি-এ ১৭ ৬৮ এর একটি ওয়েব সাইট সংষ্করণ


সংবাদ শিরোনাম :
«» বাংলাদেশ ইউনিয়ন পরিষদ ফোরাম কর্তৃক সফল ”এ” গ্রেড চেয়ারম্যান ও গোল্ড মেডেল” পদক ঘোষণা «» টাঙ্গাইল জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে ছায়ানীড়ের ভাষা অনুষ্ঠিত «» বাংলাদেশ আওয়ামী তথ্য-প্রযুক্তি লীগ আহবায়ক কমিটি, টাঙ্গাইল জেলা শাখা। «» এ মানচিত্র আমার «» টাঙ্গাইলরে গোপালপুরে নলনি বাজারে ভয়াবহ অগ্নকিান্ড; ক্ষতি ২৫ লাখ টাকা «» শীতের আগমনী গান «» মৃতঃ ব্যক্তির স্থলাভিষিক্ত অন্যজন উপস্থিত হয়ে জমি বিক্রয় বিষয়টি সম্পূর্ন ভুল হয়েছে- ডাঃ স্বপ্না রাণী, সাব রেজিঃ, সখীপুর-টাঙ্গাইল «» ধুনটে চালকের মুখে গাম লাগিয়ে অটোভ্যান ছিনতাই «» বিপিএলের সময়ে কিছুটা পরিবর্তন «» মেসির জাদুরে জয় পেল বার্সেলোনা

পুলিশের শীর্ষ পদ এখন সময়ের ব্যাপার: রৌশন আরা

‘বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতে নারীর অংশগ্রহণ দিন দিন বাড়ছে। পুরুষদের পাশাপাশি নারী সদস্যরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করছেন। উচ্চ পদেও আসীন হচ্ছেন তারা।

গুরুত্বপূর্ণ পদে দায়িত্ব পালন করে যোগ্যতার প্রমাণ রাখছেন। সেদিন হয়ত বেশি দূরে নয়, যেদিন একজন নারীকে পুলিশপ্রধান হিসেবে দেখবে দেশবাসী। ইনতিজার  সঙ্গে একান্ত সাক্ষাৎকারে এ কথা বলেছেন পুলিশের অতিরিক্ত আইজি রৌশন আরা বেগম। গত বছর নভেম্বর মাসে তিনি অতিরিক্ত আইজিপি হিসেবে পদোন্নতি পান। রৌশন আরা বেগম দ্বিতীয় নারী, যিনি এ পদে আসীন হয়েছেন। এর আগে প্রথম নারী হিসেবে এ পদে ছিলেন ফাতেমা বেগম।

রৌশন আরা বেগম বলেন, ‘পুলিশ বাহিনীতে নারীদের কাজের পরিবেশ খুবই ইতিবাচক। এখানে নারীরা স্বাচ্ছন্দ্যে কাজ করতে পারেন। পুরুষ সহকর্মীরা নারীদের সব ধরনের সহযোগিতা করে থাকেন।’ তিনি বলেন, ‘জনসংখ্যার প্রায় অর্ধেক নারী। সেবার মান বাড়াতে হলে পুলিশ বাহিনীতে নারীদের উপস্থিতি আরও বাড়াতে হবে। অন্তত ১০ ভাগ নারী পুলিশ সদস্য নিশ্চিত করতে হবে।’

রৌশন আরা বলেন, ‘আমি স্ব-ইচ্ছায় এ পেশায় যোগদান করেছি। বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিসের (বিসিএস) প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষার মাধ্যমে ১৯৮৮ সালে সহকারী পুলিশ সুপার হিসেবে বাংলাদেশ পুলিশে যোগদান করি। আমার আগে প্রতিযোগিতামূলক পরীক্ষার মাধ্যমে শুধু একজন নারী সহকারী পুলিশ সুপার হিসেবে যোগদান করার সুযোগ পান। বাংলাদেশে সামাজিক ও সাংস্কৃতিক পরিবেশের প্রেক্ষাপটে মহিলাদের এটি একটি ব্যতিক্রমী পেশা ছিল।’

তিনি বলেন, ‘পুলিশ সার্ভিসে যোগদানের ব্যাপারে পরিবার পজেটিভলি দেখতেন। আমরা বিসিএস (পুলিশ) ক্যাডারের ৪ জন নারী ছিলাম। ট্রেনিংয়ের সময় সহকর্মীরাও আমাদের ইতিবাচকভাবেই দেখতেন। কর্মক্ষেত্রেও নারীদের জন্য অত্যন্ত সহায়ক পরিবেশ রয়েছে। এখন নারীরা কর্মক্ষেত্রে তাদের দক্ষতা দিয়ে আরও এগিয়ে যাবে।’

চ্যালেঞ্জিং কাজে পুলিশের নারী সদস্যদের উপস্থিতি কম দেখা যায়- এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে ২০০৮ সালে জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে (সুদান) পুলিশের চিফ অব স্টাফ হিসেবে দায়িত্ব পালন করা এই পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, ‘সত্যিকার অর্থে কাজের মাধ্যমে সবাই দেশ ও জনগণের সেবা করে যাচ্ছে। যাকে যে দায়িত্ব দেয়া হচ্ছে সে সেটাই পালন করছে। নারী সদস্যরা যে কোনো দায়িত্ব পালনে পিছ পা হচ্ছে না।’

পেশাগত জীবন

বিসিএস পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে ১৯৮৮ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি পুলিশ ক্যাডারে যোগদান করেন রৌশন আরা বেগম। মৌলিক প্রশিক্ষণ শেষে তিনি ঢাকায় শিক্ষানবিস সহকারী পুলিশ সুপার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এরপর রাজশাহীর সারদা পুলিশ একাডেমি, নারায়ণগঞ্জ ও ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশে (ডিএমপি) সহকারী পুলিশ কমিশনার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। ১৯৯৪ সালে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হিসেবে পদোন্নতি পেয়ে কক্সবাজারে দায়িত্ব পালন করেন। এরপর একই পদে টাঙ্গাইল, কুমিল্লা ও চট্টগ্রামে কর্মরত ছিলেন।

রৌশন আরা ১৯৯৮ সালের ৩ ডিসেম্বর প্রথম নারী পুলিশ সুপার হিসেবে পদোন্নতি পেয়ে মুন্সীগঞ্জে দায়িত্ব পালন করেন। ২০১৮ সালের ৬ নভেম্বর তিনি অতিরিক্ত আইজিপি হিসেবে পদোন্নতি পান। বর্তমানে তিনি রেক্টর (অতিরিক্ত আইজিপি) হিসেবে পুলিশ স্টাফ কলেজে কর্মরত আছেন।

এই পুলিশ কর্মকর্তা দেশের বাইরে যুক্তরাজ্যের পুলিশ স্টাফ কলেজ, ব্রামশিল থেকে স্ট্রাটেজিক প্ল্যানিং কোর্স এবং লিডারশিপ কোর্স ফর ফিমেললিডার’স ইন ইন্টারন্যাশনাল একাডেমি কোর্সে অংশগ্রহণ করেন।

পুলিশ বাহিনীতে অবদানের স্বীকৃতি স্বরূপ দুইবার আইজিপি ব্যাচপ্রাপ্ত হন এবং বাংলাদেশ সরকারের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পুলিশ পদক ‘পিপিএম’ লাভ করেন। ১৯৯৮ সালে তিনি মুন্সীগঞ্জের পুলিশ সুপার থাকাকালীন ‘অনন্যা শীর্ষ দশ-১৯৯৮’ পুরস্কার ও ২০১২ সালে ইন্টারন্যাশনাল অ্যাসোসিয়েশন অব উইমেন পুলিশের স্কলারশিপ অ্যাওয়ার্ড-২০১২ লাভ করেন।

শিক্ষাজীবন

রৌশন আরা রাজধানী ঢাকার মগবাজারের সাবেক টিএন্ডটি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক ও ভিকারুননিসা-নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাস করেন। এরপর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বিএসএস (অনার্স), এমএসএস ডিগ্রি অর্জন করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Powered By : Intizar24 Developed By : BDiTZone