আজ-  ,

basic-bank

সাপ্তাহিক ইনতিজার রেজি. ন. ডি-এ ১৭ ৬৮ এর একটি ওয়েব সাইট সংষ্করণ


সংবাদ শিরোনাম :

নৈশভোজে অংশ নেবে না জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট

ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন ঐক্যফ্রন্টের নেতারা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সংলাপে অংশ নিলেও নৈশভোজে অংশ নেবেন না বলে জানিয়েছেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা ও নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না।

বৃহস্পতিবার (১ নভেম্বর) সন্ধ্যা ৭টায় গণভবনে এ সংলাপ অনুষ্ঠিত হবে। বিভিন্ন গণমাধ্যম এরই মধ্যে জানিয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৭ ধরনের খাবার দিয়ে আপ্যায়ন করবেন ঐক্যফ্রন্টের নেতাদের। যার মধ্যে থাকবে ড. কামালের বিশেষ পছন্দের খাবার চিজ কেক। হোটেল র‌্যাডিসন থেকে ঐক্যফ্রন্টের এ নেতার জন্যে এ চিজ কেক আনা হচ্ছে।

খাবারের ব্যবস্থাপনায় থাকবে পর্যটন করপোরেশন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ব্যক্তিগত সহকারী-১ (এপিএস-১) এবং প্রটোকলের চৌকস কর্মকর্তারা এসব খাবার প্রস্তুতের তদারকি করছেন।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের বিশ্বস্ত সূত্রে পাওয়া তথ্যে জানা যায়, খাবারের মেন্যুতে আরও থাকছে পিয়ারু সর্দারের মোরগ পোলাও, চিতল মাছের কোপ্তা, রুই মাছের দো-পেঁয়াজা, বাটার নান, চিকেন ইরানি কাবাব, মাটন রেজালা, বিফ শিক কাবাব, আনারস, জলপাই, মাল্টা ও তরমুজের ফ্রেশ জুস, চিংড়ি ছাড়া মিক্সড নুডলস, চিংড়ি ছাড়া টক-মিষ্টি স্বাদের কর্ন স্যুপ, মিক্সড সবজি, সাদা ভাত, টক ও মিষ্টি উভয় ধরনের দই, মিক্সড সালাদ, কোক ক্যান এবং চা ও কফি।

নৈশভোজে অংশ না নেওয়ার বিষয়টি গণমাধ্যমকে জানিয়ে মান্না বলেন, ‘একটি ক্রাইসিস মুহূর্তে সংলাপে যাচ্ছি আমরা। সেখানে নৈশভোজের তো কিছু নাই। আমরা যাব আলোচনা করতে, রাতের খাবার গ্রহণ করতে নয়।’

মান্না আরও বলেন, ‘খাবার খাওয়ার তো সময় শেষ হয়ে যাচ্ছে না, সামনে আরও অনেক সময় আছে তখন খাওয়া যাবে। আগে সংলাপে ভালো কোনো ফলাফল আসুক তখন আমরা খাব।’

বুধবার (৩১ অক্টোবর) রাতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট সিদ্ধান্ত নেয় গণভবনের নৈশভোজে অংশ না নেওয়ার।

কেন নৈশভোজে অংশ নেবেন না জানতে চাইলে মাহমুদুর রহমান বলেন, ‘সংলাপে যাচ্ছি। সেটার আগে সফলতা আসুক, পরেও খাওয়া যাবে। এখানে অন্য কারণ খোঁজার কিছু নেই। আমরা আগামীকাল সংলাপে অংশ নেব বিষয়টি আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদককে নিশ্চিত করেছি।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Powered By : Intizar24 Developed By : BDiTZone